ব্রেকাপ

Standard

ব্রেকাপ কেন হয় এর একশটা কারণ থাকতে পারে তবে ব্রেকাপের পর সম্পর্ক গুলো এত পানসে কেন হয়? ? একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে প্রতিদিন গড়ে এক লক্ষ ৪২ হাজার সম্পর্ক হচ্ছে আর ব্রেকাপ হচ্ছে ১ লক্ষ ৩০ হাজারেরও বেশি !!

একটি মানুষ যখন কিছুটা দূরে থাকে তখন আমরা ক্যামেরা জুম করে তাকে কাছে নিয়ে আসি। এই পর্যন্ত ঠিক আছে… বেশি জুম করা ভাল না… বেশি জুম করলে চেহারা ফেটে যায়… ত্বকের বিশ্রী দাগ চোখে এসে লাগে…

সম্পর্কের ক্ষেত্রেও একি নিয়ম… বেশি কাছাকাছি মানুষকে দূরে ঠেলে দেয়…..তাকে রেস্পেক্ট করবেন… তার মতামতের গুরুত্ব দিবেন… এইগুলা ঠিক আছে… তবে দেবদাসের মত নিজের সব পছন্দ অপছন্দ বিলিয়ে দিবেন না।

নিজের একটা আলাদা আইডেনটিটি আছে… সেটা ধরে রাখুন… তার কদম ভাললাগে এটা জানার পর জানিয়ে দিন কদম আপনার অসহ্য লাগে… এর ঘ্রাণ দুর্গন্ধময় !

বেশিরভাগ মানুষ সম্পর্ক সুন্দর করার জন্য মিথ্যের আশ্রয় নেয়। সম্প্রতি একটি বই পড়ে জেনেছি মিথ্যে বলা সত্যের থেকে ত্রিশ গুণ কঠিন কাজ।
অন্যকে খুশি করতে গিয়ে প্রায় ৬০ ভাগ মানুষ কথা বলার সময় প্রতি ১০ মিনিটে একটা মিথ্যে বলে।

সে এবং আপনি আপনারা একি মানুষ। এইগুলা বোকামানুষের কথা। আপনাকে তার মত হবার দরকার নেই। তাকেও আপনার মত বানানোর প্রয়োজন নেই।

আছা… ব্রেকাপের পর সম্পর্ক গুলো এত পানসে কেন হয়? দুজন মানুষের এডজাস্টমেন্ট নাই হতে পারে। এর পর আর কোনদিন তার মুখ দেখা যাবে না। তার সাথে কথা বলা যাবে না। সে হল শত্রু পক্ষ !

ভাবা যায় দিনের পর দিন আমরা এই ছেলেমানুষি গুলো করে আসছি। একজন না খেলে অন্যজন খায় না। একজনের ঘুম না এলে অন্যজন ঘুমায় না। একজন টেনশনে থাকলে অন্যজন সেই টেনশন কেড়ে নেয়… একজন পরীক্ষায় খারাপ করলে ফোনের ওপাশ থেকে অন্যজন কান্না করে।

সেই একি মানুষ গুলোই সামান্য ব্রেকাপ হলে একজন অন্যকে গালাগালি করে বেড়ায় ! মানুষকে ভালবাসতে শিখুন। মৃত্যুর আগে টলস্তয়ের শেষ কথা ছিল ‘ আমি পৃথিবীর প্রত্যেকটি মানুষকে ভালবাসি’

সম্পর্কের ডেফিনেশন কী ?

সমরেশ পড়েছেন? মাধুবিলতার কথা মনে আছে ? অনিমেশ ? অনিমেশ প্রতিবন্ধী… হাঁটতে পারে না। তাদের ছেলে একদিন জিজ্ঞাসা করল; তারা কেন বিয়ে করে নি ? মাধুবিলতার জবাব ছিল ; কাগজের দরকার হয় নি… তাই করে নি; সে যে একজন প্রতিবন্ধি মানুষকে বছরের পর বছর আগলে রেখেছে এই সম্পর্কটা কী যথেষ্ট না?

সম্পর্ক কোন সোশ্যাল নেটওয়ার্কের রিকোয়েস্ট না; একসেপ্ট করলেই শুরু হয়ে গেল আর রিমোভ করলেই শেষ। একটা মানুষ মারা যাবার পরেও সম্পর্কগুলো দাবী ছাড়ে না। ফ্রেমের শুকনো ছবি মুখে এনে চুমো খাবে। বুকের কাছে এনে পরম মমতায় হাত বুলিয়ে দিবে। কোনদিন যদি আবার কথা হয়; তবে কী কথা বলবে এইসব ভেবে জায়নামাজে বসে পড়বে।

মানুষটাকে এখন না হোক; এককালে তো ভালোবাসতেন ? অন্তত সেই দাবীতে সম্পর্কটাকে ভালবাসুন।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s